খারদাল কুরবানিতে রান্নার সঙ্গী

কুরবানির মাংসের ব্যাপারটাই অন্যরকম। বছরের অন্যান্য সময়ে যতই দেখেশুনে গরুর মাংস কিনুন না কেন, যার যার পছন্দ অনুযায়ী গরুর সবচেয়ে সরেস অংশ টাই হোক না কেন সেটা, তবু কুরবানির মাংসের সাথে যেন কোনো ভাবেই তুলনা চলে না।আর স্বাদের পরিপূর্ণতা পেতে অতি গুরুত্বপূর্ণ একটি ব্যাপার হলো রান্নার উপকরণগুলোর ভেজাল বিহীনতা।

এই জায়গাতে এসেই অনেকেরই অতৃপ্তি থেকে যায়। বাজারে সহজলভ্য পণ্য গুলোতে ঠিক যেন দ্বিধা হীন ভাবে ভরসা করতে পারেন না। এর মধ্যে রয়েছে রান্নার মূল উপকরণ গুলোর মধ্যে একটি – তেল। অনেকে স্বাদ এবং স্বাস্থ্য সচেতনতা থেকেই সরিষার তেলকে প্রেফার করেন। কারণ,

▶️ সরিষার তেল এর আনস্যাচুরেটেড ফ্যাট শরীরে কোলেস্টেরল এর মাত্রা ধীরে ধীরে কমিয়ে আনে।▶️ বিভিন্ন সমীক্ষায় দেখা যায় এটি ৭০ শতাংশ হৃৎপিণ্ড–সংক্রান্ত রোগের ঝুঁকি কমায়।আর খাঁটি সরিষার তেলে রাঁধা গরম গরম ধোঁয়া ওঠা গরুর মাংসের স্বাদের কথা নাই-বা বললাম। ভোজনরসিক মাত্রই এতক্ষণে জিভে জল চলে আসার কথা।

অথচ এর খাঁটিত্ব নিয়ে উদ্বেগটা যেন আরও বেশি। বিশেষ করে যেসকল রন্ধন শিল্পীর সাথে এখনো সরোবরের “খারদাল” এর সংযোগ ঘটেনি।তো এবারের ঈদে কুরবানির মাংসের সাথে ওমেগা আলফা ৩ ও ওমেগা আলফা ৬ ফ্যাটি অ্যাসিড, ভিটামিন ই ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ দেশি সরিষার বীজ থেকে উৎপাদিত খাঁটি সরিষার তেল “সরোবরের খারদাল” এর মেলবন্ধন ঘটাবেন নাকি?খেয়ে আপনার নিজের কাছে কেমন লাগলো আর আশপাশ থেকে রান্নার প্রশংসা কেমন পেলেন, আমাদের জানাতে ভুলবেন না কিন্তু।

X