যায়তুনের যত গুণ

এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল বা যাইতুন তেল বিশ্বের সবচাইতে স্বাস্থ্যকর খাবারের একটি। ময়েশ্চারাইজার হিসেবেও এটি অনন্য সাধারণ। নানানরকম প্রসাধনীতেও রয়েছে যাইতুন তেলের ব্যবহার।

যাইতুন তেলে রয়েছে মোনোআনস্যাচুরেটেড ফ্যাট, ভিটামিন ই, ভিটামিন কে, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এটি ব্যাড কোলেস্টেরল এর প্রভাব পড়তে দেয় না মানব দেহে। ইনফ্লামেশন, ব্লাড ক্লটিং, উচ্চরক্তচাপ, অ্যালজাইমার, কোষ্ঠকাঠিন্য ইত্যাদি নানান সমস্যার সমাধানে এই যাইতুন তেল ভূমিকা রাখে।

চুল, ত্বক, নখ, ঠোঁট ইত্যাদির যত্নেও অলিভ অয়েল এর অবদান অনস্বীকার্য। শীতকাল প্রায় চলেই এল। আর সেই প্রভাব আমাদের শরীরেও পড়তে শুরু করেছে।

পা ফাটা রোধে এখন থেকেই যাইতুন তেল ব্যবহার করা শুরু করা যেতে পারে। এছাড়া গোসলের পানিতেও যাইতুন তেল মিশিয়ে নিলে এটি শরীরের ময়েশ্চারাইজার ধরে রাখে। কিংবা ঘুমানোর আগেও সারা শরীরে অলিভ অয়েল লাগানো যেতে পারে। এছাড়া নখের ভঙ্গুরতা দূর করতে, চুল ও ফেইস এর নানা প্যাক তৈরিতে অলিভ অয়েল ব্যবহার করলে ভালো ফল পাওয়া যায়। শীতে পরিবারের বড়দের বা বাচ্চাদের

এই অলিভ অয়েল উষ্ণতার ছোঁয়া দিতে পারে সেই সাথে শরীরের আদ্রতাও ধরে রাখবে।

X