সরোবরের শীত উদ্যোগ – Shorobor
সরোবর, একটি তারামানুষ... অন্তত

সরোবরের শীত উদ্যোগ

ভদ্রমহিলা ইতস্তত করছিলেন।
– কিছু বলবেন আপা?
– আমাকে দশ হাজার টাকা ধার দিতে পারবেন? বাচ্চাদের বাবার চাকরি নেই পাঁচ মাস হয়ে গেল। ওদের মাদ্রাসার বেতন দিতে পারি না, আমি আপনাদের বাসা থেকে যে টাকা পাই সেটা দিয়ে বাজার করে খাই কোনোরকমে। প্রতিদিন হুজুর বলে তোমার মাকে বলবা বেতন দিতে। হুজুরেরও দোষ নাই – উনার বাজারে অনেক টাকা বাকী, চাল দিচ্ছে না দোকানদার।
— —
এটা একটা সত্য ঘটনা। তবে ঢাকা শহরের।
গ্রামের অবস্থা আরো নাজেহাল দুই দিক দিয়ে – কোরোনার কারণে কাজ কমে গিয়েছিল অনেকের – এখনও অর্থনৈতিক উদ্যম পুরোপুরি ফেরেনি। ব্যাপক বন্যার ফলে বিস্তীর্ণ জমির ফসল নষ্ট হয়েছে এবার।
পুরো বাংলাদেশ জুড়েই অভাবের হাহাকার এবার। এরই মধ্যে গুটি গুটি করে চলে আসছে শীত।
এবারের শীত উপলক্ষ্যে সরোবর তিনটি উদ্যোগ নিয়েছে –
১/ বাচ্চাদের জন্য শীতের কাপড় হিসেবে হুডি – যেটা একই সাথে, মাথা, কান, ঘাড় এবং দেহের শীতের কষ্ট কমাবে। ছোট বাচ্চারা বাড়ন্ত হয় বলে তাদের প্রায় প্রতি শীতেই নতুন কাপড় লাগে। আমরা আবাসিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বসবাস করে এমন শিশু এবং কিশোরদের জন্য হুডি বিক্রি করছি এবার।
একেকটা হুডির দাম মাত্র ১৮০ টাকা।
২/ শাল – ভোরে কিংবা সন্ধ্যায় – শীতপ্রধান উত্তরবঙ্গের মানুষের কর্মজীবিদের বাইরে বেরোতে হয়। এ সময় একটা মোটা শাল থাকলে জামা কিংবা শাড়ি – সবকিছুর ওপরেই জড়িয়ে নেওয়া চলে। এটা বাতাস যেমন আটকায় তেমনি ওম-ও দেয়।
একেকটা শালের দাম মাত্র ৪০০ টাকা।
৩/ কম্বল – রাতে পড়া অতিরিক্ত শীতের জন্য। সরোবরের জোড় কম্বলগুলো ঝুট কাপড় সেলাই করে দুই পরতের করে বানানো হয়। ফলে দামে সস্তা হলেও এই কম্বল গুলো মারাত্মক ওম দেয়।
একেকটা কম্বল মাত্র ২২০ টাকা।
প্রতিবারের মতো এবারও আপনারা আমাদের কাছ থেকে কিনে নিজেরা ব্যবহার করতে পারেন, বিতরণ করতে পারেন; আবার আমাদেরও দায়িত্ব দিতে পারেন যারা পাওয়ার হকদার তাদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য।
কেনার জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করার জন্য আমাদের পেইজের মেসেনজারে ইনবক্স করতে পারেন।
অথবা ইমেইল করতে পারেন shorobor.org@gmail.com অথবা info@shorobor.org – এই মেইল এড্রেসে।
এছাড়া হোয়াটস-অ্যাপে 01750 1800 55 অথবা 0186 100 5555 এই দুটো নম্বরে মেসেজ করতে পারে। খুব জরুরি দরকারে, এই দুটো নম্বরে ফোন করতে পারেন সকাল ৯টা থেকে রাত ৮টার মধ্যে।
কেউ যদি চান কেনার জন্য স্যাম্পল দেখতে সরোবরের মুহাম্মাদপুরের হুমায়ুন রোডের অফিসে স্বাগতম।
আল্লাহ আযযা ওয়া জাল্লা আমাদের সবাইকে সহমর্মীতার উষ্ণতাটুকু ভাগ করে নেওয়ার তাওফিক দেন।
Share this post